শুক্রবার , ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

৭ই জানুয়ারির মতো আগামী উপজেলা নির্বাচনেও দলে দন্দ তৈরি করতে চায় বিএনপি ….এমপি একরাম

॥ এ আর আজাদ সোহেল, নোয়াখালী জেলা  প্রতিনিধি ॥

মপি নির্বাচিত হওয়ার পর নোয়াখালী পৌর আওয়ামী লীগ কর্তৃক ফুলের শুভেচ্ছা বিনিময়ে নোয়াখালী ৪(সদর -সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী বলেন, বিএনপি চুপ করে বসে আছে। বিএনপি চাচ্ছে ৭ই জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনের মত আগামী উপজেলা নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের মধ্যে দন্ধ তৈরি করতে। যেনো নিজেদের মধ্যে মারামারি হয় দল যেন দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়ে ।

 

জায়গায় জায়গায় মানুষ পুড়েছে। আপনারা দেখেন ভোটের মাঠে সেনাবাহিনী, বিজেপি, র্্যাব, পুলিশ অবস্থানে থাকার পরও ভোটের রাতে প্রতিটা কেন্দ্রে কেন্দ্রে বোমা ফুটিয়ে আতংক সৃষ্টি করা হয়েছে। একটু চিন্তা করুন তারা শক্তি জানান দিয়েছে ওদের শক্তি কিন্তু বেড়েছে।

নির্বাচন পরবর্তী ফুলের শুভেচ্ছা দিয়ে টানা ৪র্থ বারের মতো নির্বাচিত এমপি একরামকে বরণ করে নিলেন নোয়াখালী পৌর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ।

নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্য করে একরাম বলেন, শেখ হাসিনাকে বাঁচাতে হলে সঠিক পথে চলেন। যারা মনে করেছেন আওয়ামী লীগের দলের মধ্যে থেকে যারা বাইরে গিয়ে অন্য মার্কায় নির্বাচন করে যে ভোট পেয়েছে তাতে আওয়ামী লীগের ভোট কমে গেছে। ভোট কমেনি, এরা আগেও কখোনো আওয়ামী লীগকে ভোট দিতো না।

অতিতের রেকর্ড তাই বলে। ২০০৮ সালে এ আসনে মেজর মান্নান কুলা প্রতীকে যে ভোট পেয়েছে এবারও নৌকার বিপক্ষে ভোট সেগুলো বা ২/৩ হাজারের ব্যবধান। আপনারা হিসাব করে দেখেন ২০১২-১৩ সালে শেখ হাসিনার প্রশাসনিক হাত ততোবেশি শক্তিশালী ছিল না। কিন্তু ২০২৩-২৪ সালে প্রশাসনিক হাত শক্তিশালী হওয়ার পরও নির্বাচনের আগমুহূর্তে বিএনপি ট্রেনে আগুন লাগিয়েছে।

জায়গায় জায়গায় মানুষ পুড়েছে। আপনারা দেখেন ভোটের মাঠে সেনাবাহিনী, বিজেপি, র্্যাব, পুলিশ অবস্থানে থাকার পরও ভোটের রাতে প্রতিটা কেন্দ্রে কেন্দ্রে বোমা ফুটিয়ে আতংক সৃষ্টি করা হয়েছে। একটু চিন্তা করুন তারা শক্তি জানান দিয়েছে ওদের শক্তি কিন্তু বেড়েছে। আমি জেলার নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বসেছি এবং বলেছি আমি দলের কোন পদের জন্য লালয়িত নয়।

আমি আওয়ামী লীগের এমপি হিসেবে থাকতে চাই। মানুষের ভালো বাসা নিয়ে মানুষের কল্যানে কাজ করে যেতে চাই। গরিব মানুষের পাশে থাকতে চাই। রাজনীতির কোথাও সহায়তা লাগলে আমি আমার কর্মদক্ষতা দিয়ে নিষ্ঠার সাথে কাজ করে সহযোগিতা করে যাবো। আপনারা যে নেতার অনুসারী হননা কেনো কোন অন্যায় করলে কোন ছাড় দেয়া হবে না। সোজা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে দিবো।

শনিবার(২০ জানুঃ) বিকেল ৩টায় নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পৌর আওয়ামী লীগের ৯টি ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ মহিলা আওয়ামী লীগ কৃষক লীগের নেতৃবৃন্দ ফুল দিয়ে বরণ করে নেন তাঁকে।

এ সময় নোয়াখালী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াদুদ পিন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মিথুন ভট্টের সঞ্চালনায় এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন একরামুল করিম চৌধুরী এমপি।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র সহিদ উল্লাহ খাঁন সোহেল, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মিয়া মোহাম্মদ শাহজাহান, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মমিন উল্লাহ বিএসসি, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ নাছের উদ্দিন, নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম সামসুদ্দিন জেহান, ভাইস চেয়ারম্যান নুর আলম সিদ্দিকী রাজু, জেলা যুবলীগের আহবায়ক ইমন ভট্ট, যুগ্না আহবায়ক একরামুল হক বিপ্লব প্রমুখ।

Check Also

সিরাজগঞ্জের সলংগায় মাদ্রাসা পড়ুয়া ১০ বছরের ছাত্রী নিখোঁজ।

॥ এম আরিফুল ইসলাম, সলংগা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥ সিরাজগঞ্জের সলংগা থানাধীন রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের অলিদহ গ্রামের সানজিদা …