শনিবার , ১৫ জুন ২০২৪

আজ মোংলা সরকারি কলেজের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত

॥ বাগেরহাট প্রতিনিধি ॥

সুন্দরবন সংলগ্ন বন্দর নগরীর প্রথম প্রতিষ্ঠিত উচ্চ শিক্ষার বাতিঘর মোংলা সরকারি কলেজের আজ ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। প্রথমবারের মতো নানা আয়োজনে ১৮ মে বৃহস্পতিবার মোংলা সরকারি কলেজের ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত হচ্ছে। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে র‌্যালী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি।

 

খুলনা সিটির সাবেক মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ( বর্তমানে মেয়র নির্বাচনে প্রার্থী ), উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি এবং প্রধানমন্ত্রীর সাবেক পি এস ড. নমিতা হালদারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মোংলা কলেজ সরকারিকরণ হয়।

মোংলা সরকারি কলেজ কর্তৃপক্ষ, প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ এবং বর্তমান অধ্যক্ষ সূত্রে জানা যায় ১৯৮১ সালের ১৮ মে মোংলা সরকারি কলেজ ”মোংলা কলেজ” নামে প্রতিষ্ঠিত হয়। কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন বর্তমান মোংলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শিক্ষাবিদ সুনীল কুমার বিশ্বাস ।

কলেজ সরকারিকরনের পর প্রথম বিসিএস অধ্যক্ষ হলেন প্রফেসর রবীন্দ্র নারায়ন ভট্টাচার্য্য। কলেজের প্রতিষ্ঠতা সভাপতি ছিলেন মোংলা পোর্ট পৌরসভার তৎকালীন চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন। কলেজের প্রথম ক্লাশ শুরু হয় ১৯৮১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর। চালনা বন্দর বিদ্যালয়ে কলেজের প্রথম দিকের ক্লাশ নেয়া হতো।

মোংলার কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি ১৯৮০ সালের ৯ সেপ্টেম্বর মোংলা সরকারি কলেজ প্রতিষ্ঠার লিখিত অঙ্গীকার করেছিলেন যাদের কলেজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্নদ্রষ্টা বলা হয়। এরা হলেন তৎকালীন পৌর চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন, শিক্ষাবিদ সুনীল কুমার বিশ্বাস, ডা. সৈয়দ নাজিম আলী, নীরোদ বিহারী পোদ্দার, সেন্ট পল্স উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালীন প্রধান শিক্ষক ফ্রান্সিস সুদান হালদার, শশধর মল্লিক ও অম্বিকা চরণ বিশ্বাস।

প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে যারা শিক্ষক ছিলেন তারা হলেন সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, স্বপন কুমার বিশ্বাস, সুশান্ত দাস, মৃনাল কান্তি শিকদার। দুটি বিষয়ে অনার্সসহ বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে বর্তমানে প্রায় ৩ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত আছে।

মোংলা সরকারি কলেজে বিভিন্ন সময়ে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন দক্ষিণ জনপদের উন্নয়নের রূপকার মোংলা-রামপালের সাবেক এমপি, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক ( বর্তমান কেসিসি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ) ও উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি।

মোংলা-রামপালের এই দুই অভিভাবক সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে কলেজটির অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। ২০১৩ সালের ১৩ নভেম্বর মোংলার জয়মনিতে এক সুধী সমাবেশে বেগম হাবিবুন নাহার এমপি’র প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কলেজ সরকারিকরণ’র ঘোষণা দেন। পরিশেষে ২০১৬ সালের ৩০ মার্চ মোংলা কলেজ সরকারিকরণ’র জিও জারি হয়। মোংলা কলেজ’র সরকারিকরণের নথিতে ৪জনকে প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে উল্ল্যেখ করা হয়।

প্রতিষ্ঠাতা ৪জন হচ্ছেন শিক্ষাবিদ সুনীল কুমার বিশ্বাস, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন, সেন্ট পল্স উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক ফ্রান্সিস সুদান হালদার ও মোংলা উচ্চ বালিকা বিদ্যায়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নীরোদ বিহারী পোদ্দার।

মোংলা সরকারি কলেজের শিক্ষক ড. অসিত বসু জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায়, খুলনা সিটির সাবেক মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ( বর্তমানে মেয়র নির্বাচনে প্রার্থী ), উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি এবং প্রধানমন্ত্রীর সাবেক পি এস ড. নমিতা হালদারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মোংলা কলেজ সরকারিকরণ হয়।

মোংলা সরকারি কলেজের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে অধ্যক্ষ প্রফেসর রবীন্দ্র নারায়ণ ভট্টাচার্য্য এবং শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক সাহারা বেগম, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা – কলেজের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, সাবেক সভাপতি উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি, কলেজের প্রতিষ্ঠাতাদের, কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ সুনীল কুমার বিশ্বাস, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক পিএস ড. নমিতা হালদার, কলেজের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক, শিক্ষার্থী-কর্মচারিসহ মোংলাবাসীর প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে মোংলা সরকারি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও উপজেলা আ.লীগের সভাপতি শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ সুনীল কুমার বিশ্বাস, উপজেলা চেয়ারম্যার আবু তাহের হাওলাদার , পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ হাবিবুর রহমান, মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ সামসুদ্দীন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ইস্রাফিল হাওলাদার সহ অনেকে এ সময় উপস্থিত ছিলেন

Check Also

বাংলাদেশে ওয়াই-ফাই ৭ নিয়ে এলো হুয়াওয়ে

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন ধরনের ওয়াই-ফাই ৭ অ্যাকসেস পয়েন্ট পণ্য নিয়ে এসেছে …