সোমবার , ১৭ জুন ২০২৪

উল্লাপাড়ার রুদ্রগাঁতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর নির্মাণে নিম্মমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ

॥ এ আর রাজু, উল্লাপাড়া (সিরাজঞ্জ) প্রতিনিধি ॥

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার রুদ্রগাঁতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নি¤œমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। মানহীন রড, সিমেন্ট, ইটের খোয়া, ইট, বালু ব্যবহার করে চুরিসারে এই নির্মাণ কাজ করছেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

 

রুদ্রগাঁতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য আনোয়ার হোসেন, এলাকার বাচ্চু মিয়া ও শরিফুল ইসলাম এই প্রতিবেদককে জানান, এই প্রধান শিক্ষক মোছা: সামসাদ খাতুন বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকেই লেখাপড়া ও বিদ্যালয় পরিচালনা ব্যাহত হচ্ছে।

শিক্ষা মন্ত্রাণালয়ের ক্ষুদ্র মেরামতের অর্থ দিয়ে এই নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে বলে স্থানীয়রা জানান। প্রকল্পের কাজ বিষয়ে জানেন না এস, এম, সি কমিটির সভাপতি ও অন্য সদস্যরা। প্রধান শিক্ষের বিরুদ্ধে প্রকল্পের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ তুলেছে এলাকাবাসী।

রুদ্রগাঁতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য আনোয়ার হোসেন, এলাকার বাচ্চু মিয়া ও শরিফুল ইসলাম এই প্রতিবেদককে জানান, এই প্রধান শিক্ষক মোছা: সামসাদ খাতুন বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকেই লেখাপড়া ও বিদ্যালয় পরিচালনা ব্যাহত হচ্ছে। কমিটির সদস্যদের কোনকিছু না জানিয়েই করছেন যে কোন কাজ। ভেঙে পড়ছে বিদ্যালয়ের শিক্ষা কাঠামো।

এস.এম.সি কমিটির সভাপতি মোঃ আবু সাঈদ জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ক্ষুদ্র মেরামত প্রকল্পের অর্থে বিদ্যালয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ হচ্ছে এই উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পর্কে আমাকে কোনকিছু জানানো হয়নি। তবে খুবই নি¤œমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার করে এই সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

প্রধান শিক্ষিকা মোছা: সামসাদ খাতুনকে অনিয়ম ও দুর্নীতি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, বর্তমানে দাম বেশি হওয়ায় তুলনামূলক একটু নি¤œমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে। অব্যবহৃতগুলো ফেরত দেওয়া হয়েছে। নিয়ম মেনেই সবকিছু করা হচ্ছে।

উল্লাপাড়া উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান খাঁন জানান, অভিযোগ পেয়ে বিদ্যালয়ে গিয়ে নি¤œমানের নির্মাণসামগ্রী পরিবর্তন করতে বলা হয়েছে। আরেক প্রশ্নের উত্তরে জানান, কমিটি ছাড়া বিদ্যালয়ে কোন ধরনের উন্নয়ন সম্ভব নয়।

উল্লাপাড়া উপজেলা প্রকৌশলী মো: সায়েম জানান, উন্নয়ন প্রকল্পের নকশার ডিজাইন শুধু উপজেলা প্রকৌশল অফিস করে থাকে। প্রকল্পের অর্থ ও দেখভাল শিক্ষা অধিদপ্তর করে থাকেন।

Check Also

দৌলতদিয়ায় উত্তরন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পূর্বপাড়ার ২ হাজার দুঃস্হ্য নারীদের জন্য কুরবানি মাংস বিতরণ

॥ আবুল হোসেন, রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পূর্ব পাড়ার (যৌনপল্লীর) দুই …