বুধবার , ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

তীব্র শীতে ভোগান্তিতে সিরাজগঞ্জের মানুষ।

॥ এম আরিফুল ইসলাম, সলংগা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥

সিরাজগঞ্জে হাড়কাঁপানো শীতে কাঁপছে সাধারণ মানুষ। মৃদু শৈত্যপ্রবাহে কাবু হয়ে পড়েছেন দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষজন। কুয়াশায় ব্যাহত হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা।

 

 

সকাল থেকে বসে আছি রিক্সা নিয়ে একটা লোকও নাই, বেলা এহোন দুপুর, এক ট্যাহাও ভাড়া মারি নাই। রোদ, বৃষ্টি, ঝড়, কুয়াশা যেটাই হউক, সেটাই আমগো মতো গরীবদের কষ্ট। চা বিক্রেতা মুঞ্জিল শেখ বলেন, এতো শীত এর আগে দেহি নাই। কুয়াশার কারনে কোন বেচাকােনা দোহানে নাই। মানুষ ঘর থেকে বেরই হয় না।

গত বুধবার (২৪ জানুয়ারি) জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে থাকায় বন্ধ ছিলো জেলার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এর আগে মঙ্গলবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলিসিয়াস রেকর্ড হয় সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়িতে। এটিই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল।

স্থানীয়রা জানান, ঘন কুয়াশার সঙ্গে শৈত্যপ্রবাহের কারণে মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে। কয়েক দিন ধরে দিনে কিছুক্ষণের জন্য রোদের দেখা মিললেও হিমেল বাতাসের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উত্তাপ ছড়াতে পারছে না সূর্য। এতে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ।

রিক্সা চালকেরা বলেন, সকাল থেকে বসে আছি রিক্সা নিয়ে একটা লোকও নাই, বেলা এহোন দুপুর, এক ট্যাহাও ভাড়া মারি নাই। রোদ, বৃষ্টি, ঝড়, কুয়াশা যেটাই হউক, সেটাই আমগো মতো গরীবদের কষ্ট। চা বিক্রেতা মুঞ্জিল শেখ বলেন, এতো শীত এর আগে দেহি নাই। কুয়াশার কারনে কোন বেচাকােনা দোহানে নাই। মানুষ ঘর থেকে বেরই হয় না।

Check Also

সিরাজগঞ্জের সলংগায় মাদ্রাসা পড়ুয়া ১০ বছরের ছাত্রী নিখোঁজ।

॥ এম আরিফুল ইসলাম, সলংগা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥ সিরাজগঞ্জের সলংগা থানাধীন রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের অলিদহ গ্রামের সানজিদা …