সোমবার , ১৭ জুন ২০২৪

শারদীয় উৎসবে ব্যস্ত সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

॥ এম আরিফুল ইসলাম, সলংগা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥

নাতন ধর্মাবলীদের সবচেয়ে বড় অনুষ্ঠান হল শারদীয়া দুর্গাপূজা উৎসব। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে নানা ধরনের কর্ম ব্যস্ততার মধ্যে সময় পার করছেন সলঙ্গার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের চৈত্রহাটি গ্রামের আদিবাসী গোষ্ঠীরা।

 

মন্দিরের ঠাকুর শ্রী সুবল চন্দ্র চক্রবর্তী বলেন এটি আমাদের সবচেয়ে বড় উৎসব। তাই সব সময় আমাদের মন্দিরে দর্শনার্থী আসছেন। মায়ের মন্দিরে সুন্দর ভাবে পূজা আর্চণা চলছে।

ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন কেনাকাটায়, কেউবা সময় সময় পার করছেন নারিকেলের নাড়ু, মোয়া ও অন্যান্য খাদ্য তৈরিতে। কেউবা নিজেদের ঘর সাজাতে। আবার কেউবা পরিবার-পরিজন নিয়ে দর্শশ করছেন এক মন্দির থেকে অন্য মন্দির।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চৈত্রহাটি শ্রী শ্রী জগদিশ্বরী মাতা মন্দির পূজা কমিটির সাধারন সম্পাদক অমিত কুমার শীল গ্লোবাল সংবাদ কে বলেন, সবাই মায়ের মন্দিরে দোয়ার জন্য আসছেন, নিজেদের মঙ্গল কামনা করার পাশা-পাশি প্রসাদ খাচ্ছেন। প্রতিনিয়ত আমাদের প্রসাদ বিতরণ চলছে।

মন্দিরের ঠাকুর শ্রী সুবল চন্দ্র চক্রবর্তী বলেন এটি আমাদের সবচেয়ে বড় উৎসব। তাই সব সময় আমাদের মন্দিরে দর্শনার্থী আসছেন। মায়ের মন্দিরে সুন্দর ভাবে পূজা আর্চণা চলছে।

চৈত্রহাটি আদিবাসীদের সদস্য সুমিত্রা রানী বলেন, আমরা সবাই যার যার মত মন্দির দর্শন করি, মায়ের পদ চারণে পরে দোয়া পার্থনা করি। নাচ-গান সহ নানা ভাবে আনন্দ উল্লাস করি।

আরেক সদস্য তাপস চন্দ্র মুন্ডা বলেন, মসলমানদের ঈদ উৎসব যেমন ঠিক তেমনি, আমাদের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এটি একটি বড় উৎসব। এই দিনটি আসলে আমরা আমাদের সকল দুঃখ-কষ্ট ভূলে যাই।

একে অপরে আনন্দ ভাগা-ভাগি করি। বিশেষ করে মায়ের মন্দিরে ঘুরে ঘুরে দেখলে মনটি অনেক উৎফুল্ল থাকে। হাসি-খুশিতে ভোরে ওঠে সকল পরিবার। আত্মীয় স্বজনে ভরে যায়, ফলে সবার সাথে সবার দেখা সাক্ষাৎ ও কুশল বিনিময়ের সুযোগ হয়।

Check Also

দৌলতদিয়ায় উত্তরন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পূর্বপাড়ার ২ হাজার দুঃস্হ্য নারীদের জন্য কুরবানি মাংস বিতরণ

॥ আবুল হোসেন, রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পূর্ব পাড়ার (যৌনপল্লীর) দুই …