শুক্রবার , ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

যত রকমের ভয়, হুমকি আসুক শেখ হাসিনা মাথা নত করবেনা: নোয়াখালীতে কাদের

॥ এ আর আজাদ সোহেল, নোয়াখালী জেলা  প্রতিনিধি ॥

ওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় করেননা। ভিসা নীতি তাকে ভয় দেখিয়েছে। নিষেধাজ্ঞা করে তাকে ভয় দেখিয়েছে। শেখ হাসিনা বললেন আমি শেখ মুজিবের কন্যা আমাকে ভয়ে দেখিয়ে কোন লাভ নেই। যত ভয়, হুমকি আসুক বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাথা নত করবেনা, মাথা নত করতে পারেনা।

 

কাদের বলেন, জেনারেল জিয়াউর রহমান দম্ভ করে বলেছিলেন মানি ইজ নো প্রবলেম। টাকা কোন সমস্যা নয়। আর আজ লন্ডনে বসে জিয়াউর রহমানের পলাতক পুত্র তারেক রহমান, সে গতকাল স্কাইপিতে বলেছে টাকার কোন অভাব হবেনা। পিতা যা বলেছে পুত্র তাই বলছে।

শনিবার (২২ জুলাই) বিকেল পৌনে ৬টার দিকে নোয়াখালীর জেলা শহর মাইজদীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত উন্নয়ন ও শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কাদের বলেন, তারেক রহমান কোটি কোটি টাকা পাচার করেছে। সেই টাকার ৪০ কোটি শেখ হাসিনা উদ্ধার করেছে। এফবিআই এসে সাক্ষ্য দিয়ে গেছে। তারেক রহমানের অর্থ পাচারের কথা সারা দুনিয়ার মানুষ জানে। চুরির টাকা,পাচারের টাকা, দুর্নীতির টাকা, হাওয়া ভবনের টাকা। এই অপকর্ম, অপশক্তিকে রুখতে হবে।

শেখ হাসিনার প্রসঙ্গ টেনে মন্ত্রী বলেন,সৎ,সাহসী, মানবিক একজন মাত্র নেতা শেখ হাসিনা। তিনি উন্নয়ন,দক্ষতা,সাহস ও কৌশলের জন্য সারা দুনিয়ায় আজকে তিনি প্রশংসিত। শুধু বাংদেশীরা নয়, একবাক্যে বিদেশীরাও শেখ হাসিনার প্রশংসা করে। শেখ হাসিনা প্রতিদিন রাতে তিন থেকে সাড়ে ৩ ঘন্টা ঘুমান। বাকী ২১ ঘন্টা দেশ নিয়ে ভাবেন,মানুষ নিয়ে ভাবেন। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে সাধারণ মানুষ কষ্ট পাচ্ছে। সে কারণে শেখ হাসিনাও কষ্ট পাচ্ছে।

কাদের বলেন, জেনারেল জিয়াউর রহমান দম্ভ করে বলেছিলেন মানি ইজ নো প্রবলেম। টাকা কোন সমস্যা নয়। আর আজ লন্ডনে বসে জিয়াউর রহমানের পলাতক পুত্র তারেক রহমান, সে গতকাল স্কাইপিতে বলেছে টাকার কোন অভাব হবেনা। পিতা যা বলেছে পুত্র তাই বলছে।

এত টাকা এলো কোথ থেকে। তারেক রহমান মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে পালিয়ে গেছে। আর রজনীতি করবেনা বলে অঙ্গীকার করে। সেই তারেক রহমান এখন বলে টাকার কোন অভাব হবেনা। আন্দোলন করে শেখ হাসিনার পতন ঘটাও। আজকে তারেক রহমান টাকার দম্ভ দেখাচ্ছে। টাকা হলে নাকি আন্দোলন করতে পারেব।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেন, আজকে বিএনপি নেতাদের চোখ মুখ শুকিয়ে গেছে। আন্দোলন হয়না, এই বছর না ওই বছর আন্দোলন হবে কোন বছর। এই বছর বলে রোজার ঈদের পরে আন্দোলন হবে, এরপর বলে কোরবান ঈদের পর আন্দোলন হবে। এরপর বলে পরীক্ষার পর আন্দোলন হবে। এভাবে দেখতে দেখতে ১৪বছর, আন্দোলন হবে কোন বছর। আন্দোলন বিএনপির নাগালে এলোনা।

তারেক রহমানকে উদ্দেশ করে বলেন, বিএনপির নেতাকে। তারেক রহমান। চোর চোরটা। বাংলাদেশের মানুষ জানে এই লুটেরা তারেক রহমান। এই দুর্নীতিবাজ তারেক রহমান। বাংলাদেশের মানুষ জানে দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করে দেশ থেকে লন্ডন পালিয়ে গেছে। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষ আন্দোলন করবে এটাকি বিশ্বাস হয়। অলি গলিমে শোর হায় তারেক রহমান চোর হায়। খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে টাকা পাচারের বিরুদ্ধে হাওয়া ভবনের বিরুদ্ধে।

মির্জা ফখরুল ইঙ্গিত করে বলেন, মির্জা ফখরুল মিথ্যাই বলে যাচ্ছে। এ মিথ্যাই তাদের পতন ঘটাবে।

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, নোয়াখালীর মানুষকে বিএনপির নেতারা অনেক ভুল বুঝাতে চেয়েছে। বিএনপিকে হাতি বানিয়েছিল। এই নোয়াখালী সহস্র মানুষকে ধোকা দিয়ে। আজকে ধোকা দেওয়ার দিন শেষ। আজকে নোয়াখালীর মানুষ বঙ্গবন্ধুর কন্যার সাথে আছে। কর্মিরা চায় স্মাট বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের রাজনীতির প্রসঙ্গ টেনে বলেন, রাজনীতি করার লোক আজকে রাজনীতিতে নেই। কিছু ব্যক্তি, কিছু গোষ্ঠী আজকে রাজনীতিতে এসে টাকার জোরে, গায়ের জোরে, মাস্তানি করে, বন্দুক উঁচিয়ে আজকে বাংলাদেশেকে বারে বারে নসাৎ করছে, দখল করছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিমের সভাপতিত্বে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সহিদ উল্যাহ খান সোহেলের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন,

নোয়াখালী ১ আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহীম, নোয়াখালী ৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বেগমগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ কিরণ, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য ফরিদা খানম, নোয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, সাবেক সংসদ সদস্য ও হাতিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহাকারী জাহাঙ্গীর আলম প্রমূখ।

এ সময় বেগমগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ড. এবিএম জাফর উল্যাহ, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ. কে. এম সামছুদ্দিন জেহান, চাটখিল উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সেতুমন্ত্রীর ভাগনে ফখরুল ইসলাম রাহাত, নোয়াখালী জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রহমত উল্যাহ ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

সিরাজগঞ্জের সলংগায় মাদ্রাসা পড়ুয়া ১০ বছরের ছাত্রী নিখোঁজ।

॥ এম আরিফুল ইসলাম, সলংগা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥ সিরাজগঞ্জের সলংগা থানাধীন রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের অলিদহ গ্রামের সানজিদা …