শুক্রবার , ১২ এপ্রিল ২০২৪
(ক্যাপশনঃ রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান মঙ্গলবার বিকালে পাংশার দক্ষিণাঞ্চলে স্কুল শিক্ষক মিজান হত্যাকান্ডের পিও পরিদর্শনসহ কয়েকটি স্থানে অপরাধ বিরোধী পথসভায় বক্তব্য রাখেন)

পাংশার দক্ষিণাঞ্চলে স্কুল শিক্ষক মিজান হত্যাকান্ডের পিও পরিদর্শনসহ ৪টি স্থানে অপরাধ বিরোধী পথসভা করলেন পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান

॥ সেলিম মাহমুদ, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥

রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান পাংশার দক্ষিণাঞ্চলের কলিমহর ইউপির হোসেনডাঙ্গা মধ্যপাড়া গ্রামে স্কুল শিক্ষক মিজানুর রহমান (৫০) হত্যাকান্ডের পিও পরিদর্শনসহ উপজেলার কলিমহর ইউপির হোসেনডাঙ্গা বাজারস্থ কলিমহর ইউনিয়ন পরিষদ চত্বর, কলিমহর ও কশবামাজাইল ইউপির সীমান্তবর্তী হাটবনগ্রাম ব্রিজের উপর এবং সর্বশেষ সরিষা ইউপির সরিষা বাজারে অপরাধ বিরোধী পথসভা করেছেন। মঙ্গলবার (২মে) বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে শুরু করে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত পৃথক ৪টি স্থানে অপরাধ বিরোধী পথসভায় বক্তব্য রাখেন তিনি।

 

 

সেটি আমরা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে চাই। মানুষের মাঝে বিবেচনাবোধ- মানবতাবোধ জাগ্রত করতে চাই। সমাজে যারা পেশিশক্তি প্রদর্শন করবে, যারা অপরাধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িয়ে পড়বে তাদের অবস্থান সম্পর্কে গোপনে পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে হবে।

পথসভায় পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান বলেন, এলাকায় কোন ঝামেলা থাকবে না। মাদক, ইভটিজিং, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, ফেসবুকে অপপ্রচার কোন অপরাধ ঘটতে দেয়া যাবে না। কোন অপরাধী এলাকায় থাকবে না। অপরাধী থাকবে থানায়- জেলহাজতে।

মানুষ যাতে পুরোপুরি স্বস্তিতে- শান্তিতে বসবাস করতে পারে এ লক্ষ্যে আমাদের প্রত্যেকেরই কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, আমরা যখন ছোট ছিলাম তখনতো সন্ধ্যার পরে বাড়ির বাইরে থাকতে পারি নাই। তখন পারিবারিক শাসন, সামাজিক শাসন প্রচলিত ছিল। পরস্পরের মধ্যে সুসম্পর্ক ছিল।

সেটি আমরা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে চাই। মানুষের মাঝে বিবেচনাবোধ- মানবতাবোধ জাগ্রত করতে চাই। সমাজে যারা পেশিশক্তি প্রদর্শন করবে, যারা অপরাধ কর্মকান্ডের সাথে জড়িয়ে পড়বে তাদের অবস্থান সম্পর্কে গোপনে পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে হবে।

তথ্য দিয়ে সহযোগিতার মাধ্যমে পুলিশের পাশে থাকার আহবান জানিয়ে পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামান ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, হাটবাজারের বিভিন্ন দোকান পাট ও বাসা বাড়ির সামর্থবান ব্যক্তিদের সিসি ক্যামেরা বসানোর দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।
পুলিশ সুপার বলেন, অপরাধ করে কেউ পার পাবে না। অপরাধী যেই হোক না কেন তাকে শাস্তির আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, বহিরাগত কোন ব্যক্তি আপনার এলাকায় প্রবেশ করে বিশৃঙ্খলা ঘটানোর সুযোগ পাবে না- যতক্ষণ পর্যন্ত এলাকার কেউ তাকে আশ্রয়-প্রশ্রয় না দিবে। আপনার পরিবার, আপনার সমাজ সর্বোপরি আমাদের দেশ ভালো থাকুক, জানমাল নিয়ে আপনারা ভালো থাকুন, শান্তিতে থাকুন এটাই পুলিশের কাম্য। এ লক্ষ্যে পুলিশ দিনরাত কাজ করছে।

কিন্তু পুলিশের একার পক্ষে সফলতা অর্জন কাষ্টসাধ্য। সমন্বিত প্রচেষ্টায় এলাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার গুরুত্বারোপ করেন তিনি। পথসভায় রাজবাড়ীর ডিআইও-১ মো. সাইদুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস্) মো. রেজাউল করিম, সহকারী পুলিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) সুমন কুমার সাহা, পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান, কলিমহর ইউপির চেয়ারম্যান বিলকিছ বানু ও সরিষা ইউপির চেয়ারম্যান আজমল আল বাহার বিশ্বাস প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

পথসভায় উপস্থিত জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ মনোযোগ সহকারে পুলিশ সুপারের অপরাধ বিরোধী বক্তব্য শ্রবণ করে। এলাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে অপরাধীদের অবস্থান সম্পর্কে গোপনে থানা পুলিশকে তথ্য প্রদানের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন তারা।

এদিকে, পাংশার দক্ষিণাঞ্চলে পুলিশ সুপার এম এম শাকিলুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশের বহর নিয়ে অপরাধ বিরোধী ঝটিকা কর্মসূচিতে জনমনে আস্থার সৃষ্টি করেছে।

উল্লেখ্য, পাংশা উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের অন্তর্গত হোসেনডাঙ্গা বাজার হতে বসা কুষ্টিয়াগামী রাস্তার শ্রী বলাই বিশ্বাসের বাড়ীর সামনে গত ৩০ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা মিজানুর রহমান মাস্টারকে গুলি করে হত্যা করে। নিহত মিজানুর রহমান বসা কুষ্টিয়া গ্রামের মৃত ইব্রাহিম মন্ডলের ছেলে। পাংশা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন তিনি। হত্যাকান্ডের বিষয়ে পাংশা মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Check Also

ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে জাতীয় যুব জোট রাজশাহী মহানগর শুভেচ্ছা বার্তা

॥ রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি ॥ জাতীয় যুব জোট রাজশাহী মহানগর সভাপতি শরিফুল ইসলাম সুজন ও …