সোমবার , ১৭ জুন ২০২৪

মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ নামের ১৩৩সদস্য নিয়ে নতুন সংগঠনের আত্মপ্রকাশ

॥ মোংলা প্রতিনিধি ॥

মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ নামের নতুন একটি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ পেয়েছে মোংলায়। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় মোংলা প্রেস ক্লাব হল রুমে সংবাদ সম্মেলন করে ১৩৩ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি ঘোষনা করে সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

তবে এ কমিটিতে অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে কিছু কিছু সদস্যে নাম নিয়ে রয়েছে বির্তক। আহবায়ক কমিটি যে সকল সদস্যরা রয়েছে তারা কি আসলেই বন্দরের উন্নয়নে কাজ করবে না কি সংগঠনের নামের আড়ালে ফায়দা লোটার পরিকল্পনা রয়েছে এটা নিয়ে সচেতন মহলে রয়েছে নানা গুঞ্জন।

 

১৩৩ সদস্য বিশিষ্টি এ নতুন কার্যকরী আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে মোঃ নাসির হাওলাদার নাম ঘোষনা করা হয়।সোমবার মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক মোঃ শাহ আলম (ভিপি) এর সভাপতিত্বে মোংলা প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান গাজী এ অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেণ।

সোমবার দুপুরে এ সংগঠনের প্রথম আত্মপ্রকাশ ও কার্যক্রম নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে। যার নাম দেয়া হয়েছে “মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ”।

মতবিনিময় সভায় নতুন এ সংগঠনের নাম ও বিস্তারিত বিষয় বস্তু নিয়ে আলোচনা করেণ নব গঠিত মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক ভিপি শাহ আলম।

১৩৩ সদস্য বিশিষ্টি এ নতুন কার্যকরী আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে মোঃ নাসির হাওলাদার নাম ঘোষনা করা হয়।সোমবার মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক মোঃ শাহ আলম (ভিপি) এর সভাপতিত্বে মোংলা প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান গাজী এ অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেণ।

এসময় অন্যান্যদের মধ্য মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের সদস্য সচীব মোঃ নাছির হাওলাদার, মোংলা বন্দর বণিক সমিতির সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমান মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম খোকন,

মোংলা বন্দর মেরিন ইঞ্জিনিয়ার ওয়ার্কশপের সভাপতি মোঃ ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সহ কার্যনির্বাহী অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। তবে এ সংগঠনের অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে অনেক’কেই নিয়ে রয়েছে বির্তক।

কারণ, ৯০ দশকে মোংলা বন্দর যখন মৃত বন্দরে পরিনত হয়েছিল, তখন বন্দরকে সচল করার নামে বিভিন্ন সময় বন্দর রক্ষা ও উন্নয়ন নামে বেশ কয়েকটি সংগঠন তৈরী হয়েছিল।

কেউ বন্দরের উন্নয়নের পক্ষে আবার কেউ নিজের স্বার্থ হাসিলের কাজে ব্যাবহৃত হয়েছে। আর শেষ পর্যন্ত নিজেদের স্বার্থ হাসিলের পর বন্দর উন্নয়ন’তো দুরের কথা অনেক সংগঠন আলোর মুখ পর্যন্ত দেখেনি। সেই সময়ের মৃত বন্দর এখন লাভ জনক প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে।

বর্তমান সরকারের নানা মুখী উন্নয়নে এ বন্দরকে বিশ্বের বানিজ্যিক বাজারে একটি কর্ম মুখর বন্দর হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। উন্নয়ন মুলক কাজ চলমান রয়েছে, জাহাজ বৃদ্ধি পেয়েছে,

রাজস্ব আয় হচ্ছে কিন্ত তার পরেও কেনইবা মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ নামের নতুন সংগঠন তৈরী হয়েছে। এটা নিয়ে সচেতন মহলে রয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

সাংবাদিকদের নিয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় মোংলা বন্দর উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ কমিটিতে স্থানীয় ব্যাসবাসী, বন্দর শ্রমিক, শিক্ষক, সাংবাদিক সহ বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেণী পেশার লোকজন রয়েছেন।

মোংলা বন্দরের সার্বিক উন্নয়নে একাত্ম হয়ে কাজ করবেন নব গঠিত এ উন্নয়ন পরিষদ বলে সভায় উপস্থিত সকলে বন্দর উন্নয়নের স্বার্থে এ পরিষদের স্বপক্ষে সমর্থনও জানিয়েছেন নুতন গঠিত এ আহবায়ক কমিটির সদস্যদের।

এসময় উপস্থিত বক্তারাদের মধ্যে অনেকেই বলেন, মোংলা বন্দর উন্নয়ন করার জন্য এ আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইতি পুর্বে বহু সংগঠন তৈরী হয়েছিল,

এর মধ্যেও কিছু ষড়যন্ত্রকারীরা সংগঠনকে সামনে এগোতে দেয়নী। আজকে এ সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে যদি কেউ নিজের স্বার্থ হাসিল করা বা

কমিটিতে নাম রেখে গোপনে ষড়যন্ত্রকারীদের সাথে আতাত করে মোংলা বন্দর সহ দেশের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করে বা নিজে আর্থীক সুবিধা নেয়ার জন্য ফায়দা লোটার চেষ্টা করে তা হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়ার আহবান জানানো হয়।

Check Also

দৌলতদিয়ায় উত্তরন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পূর্বপাড়ার ২ হাজার দুঃস্হ্য নারীদের জন্য কুরবানি মাংস বিতরণ

॥ আবুল হোসেন, রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পূর্ব পাড়ার (যৌনপল্লীর) দুই …