শুক্রবার , ১৯ এপ্রিল ২০২৪

পাংশায় বাড়ির অদূরে প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ

॥সেলিম মাহমুদ, পাংশা (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ॥

রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউপির উত্তর পাট্টা গ্রামের একটি ভিটা বাগান থেকে শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারী) সকালে রোজিনা বেগম (৩০) নামের এক দুবাই প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। দুর্বৃত্তরা বৃহস্পতিবার রাতের যেকোন সময়ে রোজিনাকে কৌশলে ঘর ডেকে নিয়ে হত্যা করে লাশ বাড়ী থেকে প্রায় তিনশত মিটার দূরে কাঁচা রাস্তার পাশে ওসমান মোল্লার ভিটা বাগানে ফেলে রেখে যায়।

 

রোজিনা বেগমের স্বামী লিটন শেখ দুবাই প্রবাসী। লিটন শেখের দ্বিতীয় স্ত্রী দুবাই থাকে। প্রায় দুই মাস হলো দ্বিতীয় স্ত্রী লিটন শেখকে দুবাই নিয়ে গেছে বলে জানা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। হত্যাকান্ডের ঘটনায় দুবাই প্রবাসী লিটন শেখ ও তার পিতা ডেকোরেটর ব্যবসায়ী আবুল কালাম শেখের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনার মোটিভ জানা যায়নি।

জানা যায়, আবুল কালাম শেখের জোনা পাট্টা বাজারের অদূরে বাড়ির সন্মুখভাগে ডেকোরেটরের দোকান রয়েছে। ওই বাড়িতেই তিনি স্ব-স্ত্রীক বসবাস করেন। তার দুই পুত্র লিটন শেখ ও সালাম শেখের উত্তর পাট্টা গ্রামে পৃথক বাড়ী। সালাম শেখ একটি হত্যা মামলার আসামী ছিল। দীর্ঘদিন জেল হাজত খেটে সম্প্রতি জামিনে বের হয়ে স্ত্রীকে নিয়ে সে অন্য কোথাও বসবাস করছে বলে স্থানীয় একটি সূত্র জানায়।

পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। নিহতের মাথার পেছন অংশে আঘাতের চিহ্ন আছে। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

উত্তর পাট্টা গ্রামের বাড়িতে লিটন শেখ স্ত্রী রোজিনা বেগম, পুত্র রাসেল (১২) ও কন্যা রাফিয়া (৯) কে নিয়ে বসবাস করতেন। প্রায় দুই মাস হলো লিটন শেখ দুবাই গিয়েছে। এদিকে, রোজিনা বেগমের এক ভাই মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হলে সে তাকে দেখতে পৈত্রিক বাড়ী কালুখালী উপজেলার সাওরাইল ইউপির কুমরীরানী গ্রামে যায়।

গত বৃহস্পতিবার বিকালে সে পৈত্রিক বাড়ী থেকে পাট্টায় স্বামীর বাড়িতে ফেরেন এবং রাতে হত্যার শিকার হন। রোজিনা বেগমের প্রতিবেশিরা জানায়, বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে আবুল কালাম শেখ তাদেরকে ঘুম থেকে ডেকে বলেন যে রোজিনাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তখন প্রতিবেশিরা আবুল কালাম শেখের সাথে লিটন শেখের বাড়িতে গিয়ে দেখেন ঘরের এক পাল্লার টিনের দরজা খোলা। রোজিনা বেগম ঘরে নাই।

প্রতিবেশিরা যার যার মতো বাড়িতে ফিরে যায় এবং আবুল কালাম শেখ পুত্রবধূকে খুঁজতে থাকেন। খবর পেয়ে রাতেই রোজিনা বেগমের পৈত্রিক বাড়ির লোকজন উত্তর পাট্টা গ্রামে রোজিনার বাড়িতে ছুটে যায়। কিন্তু রাতে কোথায়ও তার সন্ধান মেলেনি।

সর্বশেষ শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে কুরোন মোল্লার স্ত্রী মাটির জন্য বাড়ী থেকে বের হলে তার বাড়ির পাশে ওসমান মোল্লার ভিটা বাগানে লিটন শেখের স্ত্রী রোজিনা বেগমের লাশ দেখে অন্যদের জানায়। তখন আবুল কালাম শেখ ও তার স্ত্রী ঘটনাস্থলে গিয়ে পুত্রবধূর লাশ দেখে কান্নাকাটি করতে থাকে।
খবর পেয়ে পাংশা থানার এসআই সেলিম ও এসআই দীপঙ্করসহ সঙ্গীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহ রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

পাংশা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। নিহতের মাথার পেছন অংশে আঘাতের চিহ্ন আছে। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট পেলে বিস্তারিত জানা যাবে। হত্যাকান্ডের মোটিভ উদঘাটন ও জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে বলে তিনি জানান। নিহতের ভাই নাজমুল খান বলেন, তার বোন রোজিনাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচার দাবী করেন তিনি।

Check Also

ভিক্ষা ছেড়ে বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিশেষ চাহিদা সম্পর্ণ রতনদের পাশে প্রশাসন

॥ আবুল হোসেন, রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি ॥ একটা সময় মানুষের দুয়ারে দুয়ারে হাত পেতে জীবিকা …