শনিবার , ১৩ এপ্রিল ২০২৪

মোংলায় পাওয়ানা টাকা চাওয়ায় বড় বোনকে হত্যার হুমকি দিলো ছোট বোন

॥ বাগেরহাট প্রতিনিধি ॥

পাওয়ানা টাকা চাওয়ার অপরাধে বড় বোনসহ তার পরিবারকে হত্যার হুমকি দিলো ছোট বোন জোসনা বেগম সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীর লোকজন। বিপদের সময় ছোট বোনকে টাকা ধার দিয়ে এখন সকলের দ্বারে দ্বরে ঘুরে বেড়াচ্ছে বড় বোন নুর জাহান বেগম।

এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দিলেও উল্টো প্রশাসন ছোট বোনের পক্ষ নেয়ার অভিযোগ করেন তিনি। প্রতারক ছোট বোন ও তার লোকজনের প্রকাশ্য জীবন নাশেল হুমকিতে নিরাপত্তা হিনতায় ভুগছে আপন বড় বোন সহ তার পরিবারের সদস্যরা।

 

 

এ ঘটনায় অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা মোংলা থানার উপ-সহকারী পুলিশ পরিদর্শক ইমানুর রহমান বলেন, বোনের কাছে পাওনা টাকার ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

থানায় দেয়া অভিযোগ সুত্র ও ভুক্তভোগী নুর জাহান বেগম জানায়, মোংলা উপজেলা বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের দ্বিগরাজ বালুর মাঠ মেঘনা সিমেন্ট ফ্যাক্টরির সামনে নুরনবী মিজির স্ত্রী নুর জাহান বেগম সহ তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বসবাস করছেন। শিশু কাল থেকেই মা হারা ছোট বোন জোসনাকে কোলে পিঠে করে মানুষ করেছেন বড় বোন নুর জাহান।

কিন্ত বড় হওয়ার পর থেকেই সে বেপরোয়া ভাবে চলাফেড়া করতে শুরু করে ছোট বোন জোসনা বেগম। বখাটেদের নিয়ে গড়ে তোলে অপরাধ সর্গরাজ্য বলে অভিযোগ করে আপন বড় বোন নুর জাহান বেগম।

তিনি বলেন, বেশ কিছু দিন পুর্বে ছোট বোন জোসনা বেগম তার বড় একটি সমস্যার কথা বলে নিজ জমির দলিল বন্ধক রেখে বড় বোন নুর জাহান বেগম ও তার পরিবারের কাছ থেকে ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা ধার নেয়। এ টাকা ২/৩ মসের মধ্যে পরিশোধ করবে বলেও প্রতিশ্রুতি করে জোসনা বলে জানায় বড় বোন নুর জাহান।

 

এ পাওয়ানা টাকা গত কয়েকদিন যাবত জোসনা বেগম’র কাছে ফেরত চাওয়ায় এ টাকা ফেরত দিতে অনিহা প্রকাশ করে জোসনা। টাকা ফেরত না দিয়ে বিভিন্ন অজুহাতে সময় ক্ষেপন করে আসছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। এমতাবস্থায় গত ৩০ জুন সকাল ৯টার দিকে পাওনা টাকা চাইলে গেলে এনিয়ে ঘটনার দিন তারা দুই বোনের মধ্যে তর্ক বিতর্ক হয়।

এক পর্যায়ে ছোট বোন জোসনা বেগম তার লোকজন দিয়ে নুর জাহাজন বেগম সহ তার পরিবারের লোকজনকে মারধর করতে উদ্বৃত্ত হয়। পরে স্থানীয়রা এসে উভয় পক্ষকে সমোজতা করার চেষ্টা করে। শুক্রবার ২৫ আগষ্ট দুপুরেও দুই বোনের সাথে ঠিক একই ঘটনার সুত্রপাত।

এ বিষয় সন্ধ্যায় মোংলা থানা পুলিশের কাছে নালিশ করতে এসে তদন্ত কর্মকর্তাকে না পেয়ে এমন অভিযোগ করেন তিনি। পরে বড় বোন মোসাঃ নুর জাহান বেগম বাদি হয়ে ছোট বোন জোসনা বেগম ও তার স্বামী রামিন ওরফে রাকিব মোল্ল্যাকে আসামী করে মোংলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেণ। এ নিয়ে দুই বোন ও তাদের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

তবে এ ঘটনার বিষয় জানার জন্য জোসনা বেগমের সাথে মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগ করা চেষ্টা করা হলেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ ঘটনায় অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা মোংলা থানার উপ-সহকারী পুলিশ পরিদর্শক ইমানুর রহমান বলেন, বোনের কাছে পাওনা টাকার ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

এব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ আমার কাছে তদন্তের ভার দিলে তা নিয়ে সরে জমিনে তদন্ত করা হচ্ছে। তবে ঘটনা যদি সত্য হয়, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হবে বলে জানায় তিনি।

Check Also

ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে জাতীয় যুব জোট রাজশাহী মহানগর শুভেচ্ছা বার্তা

॥ রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি ॥ জাতীয় যুব জোট রাজশাহী মহানগর সভাপতি শরিফুল ইসলাম সুজন ও …